বরিশাল ক্রাইম নিউজ

বরিশাল ক্রাইম নিউজ

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমরা

Print Friendly, PDF & Email

উজিরপুরে শোক দিবসের ব্যানারে জন্মদিন উদযাপন, সমালোচিত মেয়র

বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডেস্ক :: বরিশালের উজিরপুর পৌরসভার মেয়র মোঃ গিয়াস উদ্দিন ব্যাপারির জন্মদিন বেশ ঘটা করেই পালন করা হয়েছিল। কিন্তু দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় শোক দিবসের ব্যানারের সামনেই আনন্দ উল্লাসে কেক কেটে জন্মদিন পালন করা হয়। পাশাপাশি জন্মদিন পালনের সেই ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। আর তখনি তা নিয়ে শুরু হয় ঢের সমালোচনা। জাতীয় শোক দিবসের ব্যানারের সামনে আনন্দ উল্লাসে কেক কেটে এ কেমন জন্মদিন পালন, এমনটাই প্রশ্ন ওঠে নানা মহলের। অন্যদিকে এ নিয়ে দলের অন্যান্য নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। জন্মদিন পালনের দুই মাস পেরিয়ে গেলেও শোকের ব্যানের সামনে পৌর মেয়রের জন্ম দিন পালন নিয়ে সমালোচনা যেন কিছুতেই থামছে না। যদিও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বলছেন- এটি একটি ভুল।

জানা গেছে- জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে উজিরপুর আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে শোক সংবলিত একটি ব্যানার টানানো হয়েছিল। শোক দিবস পেরিয়ে গেলেও ব্যানারটি না খুলে তার সামনেই উজিরপুর পৌরসভার মেয়র, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মোঃ গিয়াস উদ্দিন ব্যাপারীর জন্মদিন পালন করা হয়েছিল। জন্মদিনের অনুষ্ঠানে উজিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএম জামাল হোসেন, বরিশাল জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাকসহ দলীয় প্রায় শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় শোক দিবসের ব্যানারের সামনে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের নিয়ে পৌর মেয়র কিভাবে নেজের জন্মদিন পালন করেন এ নিয়ে নানা গুঞ্জন চলতে থাকে। বিশেষ করে পৌর নির্বাচন খুব কাছাকাছি চলে আসায় গুঞ্জন যেন আরও প্রখর আকার ধারণ করে।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা বলছেন- যিনি জাতীয় শোক দিবসের ব্যানারের সামনে দাড়িয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে নিজের জন্মদিন পালন করে এমন লোককে যেন পরবর্তীতে দলীয় টিকিট না দেয়া হয়। তাছাড়া এমন লোককে কিভাবে দলের গুরুত্বপূর্ণ একাধিক পদে রাখা হয়েছে এ নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। পাশাপাশি এমন কর্মকাণ্ডের জন্য তার বিচারও দাবি করছেন নেতাকর্মীরা।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা আরও বলছেন- তিনি যদি বঙ্গবন্ধুকে এবং আওয়ামী লীগকে মনে প্রানে ভাল বাসতেন তাহলে এমন কাজ করতে পারতেন না। মনে প্রানে ভালবোসেন না বলেই তিনি এমন কাজ করেছেন। বঙ্গবন্ধুকে সম্মান দেয়াটা তার কাছে মুখ্য নয়!

এ বিষয়ে উজিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম জামাল হোসেন এ প্রতিবেদককে বলেন- শোক দিবসের ব্যানারের সামনে জন্মদিন পালন করা কিছুতেই ঠিক হয়নি। যদিও পরবর্তীতে তিনি বলেন, এটি ভুলবসত করা হয়েছে।

এ বিষয়ে পৌর মেয়র গিয়াস উদ্দিন ব্যাপারির সাথে কথা বললে তিনি বলেন- আমি প্রস্তুত ছিলাম না। ওয়ার্ড ছাত্রলীগের ছেলেরা কেক নিয়ে আসে সেটাই দলীয় কার্যালয়ে বসে কাটি। ব্যানারটা আগে থেকেই লাগানো ছিলো। এ নিয়ে সমালোচনার কিছু নেই। আর সমালোচনা করলেও আমার কিছু যায় আসে না।

শেয়ার করুন :
Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp

আপনার মন্তব্য করুন :