বরিশাল ক্রাইম নিউজ

বরিশাল ক্রাইম নিউজ

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমরা

Print Friendly, PDF & Email

কুয়াকাটা সমুদ্রসৈকত দেখতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন কলেজছাত্র

পটুয়াখালী প্রতিনিধি :: সমুদ্রসৈকত কুয়াকাটা দেখা হলো না ঢাকা মিরপুর-১ পাইকপাড়া এলাকার আনোয়ার হোসেনের ছেলে কলেজছাত্র তানভীরের। সমুদ্র সৈকত কুয়াকাটা পৌঁছার আগেই আমতলী-কুয়াকাটা মহাসড়কের খুরিয়ার খেয়াঘাট নামক স্থানে মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় লাশ হয়ে বাড়ি ফিরলেন। এ ঘটনায় তার বন্ধু পারভেজ ও টমটমচালক নিজাম মুসুল্লী আহত হয়েছেন। আহতদের বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনা ঘটেছে সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে।

জানা গেছে, ঢাকা নিউ মডেল কলেজের অনার্সের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র তানভীর (২৩) ও তার বন্ধু পারভেজ বিজয় দিবসের ছুটিতে ঢাকা থেকে মোটর সাইকেলযোগে সমুদ্র সৈকত কুয়াকাটা ভ্রমণে যাচ্ছিলেন। ওই মোটর সাইকেলটি তানভীর নিজেই চালাচ্ছিলেন। কুয়াকাটা থেকে ৩০ কিলোমিটার উত্তরে আমতলী-কুয়াকাটা মহাসড়কের খুড়িয়ার খেয়াঘাট নামক স্থানে সোমবার বেলা ১৩০-এর দিকে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে দাঁড়ানো একটি টমটমের উপর উঠিয়ে দেয়।

এতে মোটর সাইকেল চালক তানভীর, বন্ধু পারভেজ ও টমটম চালক নিজাম মুসুল্লী গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাদের আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। ওই হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করে। শেবাচিম হাসপাতালে নেয়ার পথে লেবুখালী নামক স্থানে ওইদিন দুপুর দেড়টায় তানভীরের মৃত্যু হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন তার বন্ধু আহত পারভেজ।

প্রত্যক্ষদর্শী মিলন মিয়া বলেন- দ্রুতগতিতে একটি মোটর সাইকেল চালিয়ে কুয়াকাটার দিকে যাচ্ছিল। উপজেলার খুড়িয়ার খেয়াঘাট আসা মাত্রই মোটরসাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি টমটমের উপর তুলে দেয়। এতে মোটর সাইকেলচালক, তার বন্ধু ও টমটম চালক আহত হয়।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার নিখিল চন্দ্র বলেন, তিনজনকেই বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনজনের মধ্যে তানভীরের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

তানভীরের বন্ধু আহত পারভেজ বলেন, গুরুতর আহত তানভীর বরিশাল নেয়ার পথে লেবুখালী নামক স্থানে মারা গেছেন।’

শেয়ার করুন :
Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp

আপনার মন্তব্য করুন :