বরিশাল ক্রাইম নিউজ

বরিশাল ক্রাইম নিউজ

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমরা

Print Friendly, PDF & Email

ঝালকাঠিতে প্রকাশ্যে গাড়ি থামিয়ে চাঁদা তুলছে পুলিশ!

জিয়াউল হাসান শুভ :: ঝালকাঠির পেট্রোল পাম্প এলাকার সড়কে যানবাহন থামিয়ে প্রকাশ্যে চাঁদা আদায় করছে ট্রাফিক পুলিশ। একই সঙ্গে ঝালকাঠি-বরিশাল মহাসড়কে মালবাহী ট্রাক, মাইক্রোবাস ও বিভিন্ন যানবাহন থামিয়ে নিয়মিত চাঁদা আদায় করছে পুলিশ।

ভারী ও মাঝারি একাধিক যানবাহনের চালক জানিয়েছেন, ঝালকাঠি ট্রাফিক পুলিশ ঝালকাঠি-বরিশাল মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে গাড়ি তল্লাশির নামে মালবাহী ট্রাক ও মাইক্রোবাস থামিয়ে চাঁদা আদায় করছে। চাঁদা না দিলে চালকদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হচ্ছে। প্রতি ভারী ও মাঝারি যান থেকে ১০০ টাকা থেকে ৫০০ টাকা পর্যন্ত চাঁদা আদায় করে ট্রাফিক পুলিশ।

ট্রাকচালক আবুল হোসেন বলেন, ঝালকাঠি-বরিশাল মহাসড়ক এলাকায় নিয়মিত অবৈধ মালামাল ও কাগজপত্র দেখার নামে কাঁচামাল ও বিভিন্ন পণ্যবোঝাই ট্রাক, পিকআপ থেকে ১০০ টাকা থেকে ৫০০ টাকা পর্যন্ত চাঁদা নেয় ট্রাফিক পুলিশ। দীর্ঘদিন ৩০০ টাকা করে পুলিশকে চাঁদা দিয়ে আসছি আমরা।

পুলিশকে কেন টাকা দিচ্ছেন এমন প্রশ্নের জবাবে ট্রাকচালক আবুল হোসেন বলেন, টাকা না দিলে গাড়ি তল্লাশির নামে মালামাল নামানো ও মামলা দেয়া হয়। মামলা ও হয়রানির ভয়ে পুলিশকে চাঁদা দিয়ে ঝামেলামুক্ত থাকি আমরা। অনেক সময় পুলিশের চাহিদামতো চাঁদা দিতে না চাইলে হয়রানিমূলক মামলা দেয়া হয়। নীরবে সহ্য করা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই আমাদের।

সরেজমিনে দেখা গেছে, আজ শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে ঝালকাঠি ট্রাফিক পুলিশের এসআই ফকরুলের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল প্রকাশ্যে বিভিন্ন গাড়ি থেকে চাঁদা তুলছে।

সড়কে গাড়ি থামিয়ে কিসের চাঁদা তোলা হচ্ছে এমন প্রশ্ন করা হলে এসআই ফকরুল কোন সদোত্তর না দিয়ে প্রতিবেদককে ম্যানেজের চেষ্টা করে। এ সংক্রান্তে প্রতিবেদকের কাছে একাধিক ভিডিও ফুটেজ রয়েছে।

এব্যাপারে ঝালকাঠি জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও সদর সার্কেল এস এম মাহমুদ হাসান বরিশাল ক্রাইম নিউজকে বলেন, সড়কে গাড়ি থামিয়ে চাঁদা আদায়ের ঘটনা সত্য হয়ে থাকলে অভিযুক্ত পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন :
Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp

আপনার মন্তব্য করুন :