বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কমঝালকাঠিতে হত্যা মামলার প্রধান আসামির হাত-পা কাটা লাশ উদ্ধার - বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম
শনিবার, ২০ এপ্রিল, ২০১৯, , ভোর ৫:১৮

আপডেটঃ মার্চ ২৪, ২০১৯ ১১:১১ পূর্বাহ্ণ
A- A A+ Print

ঝালকাঠিতে হত্যা মামলার প্রধান আসামির হাত-পা কাটা লাশ উদ্ধার

ঝালকাঠির নলছিটিতে ছাত্রলীগকর্মী সজল হাওলাদার হত্যা মামলার প্রধান আসামি সাইদুল ইসলাম তালুকদারের (৩০) হাত-পা কাটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার সন্ধায় দিকে উপজেলার নাচনমহল বাজার সংলগ্ন এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, সাইদুলকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে মরদেহ ফেলে রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মোল্লারহাট ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ।

২০১৬ সালের ৩ জুলাই বরিশাল বিএম কলেজের ছাত্র ও মোল্লারহাট ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কর্মী সজল হাওলাদারকে (১৮) গুলি করে হত্যা করা হয়। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে বিরোধের জেরে তাকে হত্যা করা হয়েছিল।

পুলিশ জানায়, শনিবার বিকেলে নাচনমহল বাজারের দক্ষিণ পাশে সাইদুলের হাত-পা কাটা লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। পরে পুলিশ গিয়ে সেটি উদ্ধার করে। সাইদুল ইসলাম তালুকদার নাচনমহল গ্রামের আবদুল আজিজ তালুকদারের ছেলে।

সজল হত্যা মামলায় গ্রেফতার হয়ে জেলহাজতে ছিল সাইদুল। জামিনে মুক্তি পেয়ে সে সম্প্রতি এলাকায় আসে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে সাইদুলের বাড় বোন আকলিমা বেগম বলেন, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমার ভাই মোল্লারহাট ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেনের সঙ্গে ছিল। এ কারণেই সজল হত্যা মামলায় আসামি হয়েছে। বর্তমানে চেয়ারম্যান কবিরের সঙ্গে তার বিরোধ দেখা দেয়। কবিরের লোকজনই আমার ভাইকে হত্যা করেছে।

নলছিটি থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) আবদুল হালিম তালুকদার বলেন, সাইদুল হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মোল্লারহাট ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেনকে আটক করা হয়েছে। এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম

ঝালকাঠিতে হত্যা মামলার প্রধান আসামির হাত-পা কাটা লাশ উদ্ধার

রবিবার, মার্চ ২৪, ২০১৯ ১১:১০ পূর্বাহ্ণ | আপডেটঃ মার্চ ২৪, ২০১৯ ১১:১১ পূর্বাহ্ণ

ঝালকাঠির নলছিটিতে ছাত্রলীগকর্মী সজল হাওলাদার হত্যা মামলার প্রধান আসামি সাইদুল ইসলাম তালুকদারের (৩০) হাত-পা কাটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার সন্ধায় দিকে উপজেলার নাচনমহল বাজার সংলগ্ন এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, সাইদুলকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে মরদেহ ফেলে রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মোল্লারহাট ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ।

২০১৬ সালের ৩ জুলাই বরিশাল বিএম কলেজের ছাত্র ও মোল্লারহাট ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কর্মী সজল হাওলাদারকে (১৮) গুলি করে হত্যা করা হয়। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে বিরোধের জেরে তাকে হত্যা করা হয়েছিল।

পুলিশ জানায়, শনিবার বিকেলে নাচনমহল বাজারের দক্ষিণ পাশে সাইদুলের হাত-পা কাটা লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। পরে পুলিশ গিয়ে সেটি উদ্ধার করে। সাইদুল ইসলাম তালুকদার নাচনমহল গ্রামের আবদুল আজিজ তালুকদারের ছেলে।

সজল হত্যা মামলায় গ্রেফতার হয়ে জেলহাজতে ছিল সাইদুল। জামিনে মুক্তি পেয়ে সে সম্প্রতি এলাকায় আসে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে সাইদুলের বাড় বোন আকলিমা বেগম বলেন, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমার ভাই মোল্লারহাট ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেনের সঙ্গে ছিল। এ কারণেই সজল হত্যা মামলায় আসামি হয়েছে। বর্তমানে চেয়ারম্যান কবিরের সঙ্গে তার বিরোধ দেখা দেয়। কবিরের লোকজনই আমার ভাইকে হত্যা করেছে।

নলছিটি থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) আবদুল হালিম তালুকদার বলেন, সাইদুল হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মোল্লারহাট ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেনকে আটক করা হয়েছে। এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সম্পাদক ও প্রকাশক : খন্দকার রাকিব ।
ফকির বাড়ি, ৫৫৪৫৪ বরিশাল।
মোবাইল: ০১৭২২৩৩৬০২১
ইমেইল : rakibulbsl@gmail.com, barisalcrimenews@gmail.com