তামিম দলে থাকার পরও চট্টগ্রামের অধিনায়ক মুমিনুল! | বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম – তামিম দলে থাকার পরও চট্টগ্রামের অধিনায়ক মুমিনুল! তামিম দলে থাকার পরও চট্টগ্রামের অধিনায়ক মুমিনুল! – বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম
তামিম দলে থাকার পরও চট্টগ্রামের অধিনায়ক মুমিনুল! – বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম

তামিম দলে থাকার পরও চট্টগ্রামের অধিনায়ক মুমিনুল!

প্রকাশ: ৮ অক্টোবর, ২০১৯ ৮:২৮ : অপরাহ্ণ

বিসিবি কি মুমিনুল হককে ভবিষ্যত টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে পেতে চাচ্ছে? সাকিব আল হাসান যদি সত্যিই অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়ান বা টেস্টে দল পরিচালনা করতে না চান, তাহলে কি মুমিনুল হকই হবেন বাংলাদেশের পরবর্তী টেস্ট ক্যাপ্টেন?

হাওয়া থেকে পাওয়া কোন খবর নয়। ক্রিকেট পাড়া বা শেরে বাংলার আশপাশে ভেসে বেড়ানো গুঞ্জনও নয়। এটা নিছকই অনুমান। তবে এ অনুমানের একটি ছোট্ট দালিলিক প্রমাণও আছে। যাতে মনে হচ্ছে বিসিবি দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেটে মুমিনুল হকের অধিনায়কত্ব পাখির চোখে পরখ করতে আগ্রহী। আর তাই তো এবারের জাতীয় লিগে চট্টগ্রাম বিভাগের অধিনায়ক করা হয়েছে কক্সবাজারের বাঁহাতি উইলোবাজ মুমিনুল হক সৌরভকে।

ভাবছেন, মুমিনুল হক টেস্ট স্পেশালিস্ট। টেস্টে বাংলাদেশের অন্যতম নির্ভরতা। অপরিহার্য সদস্য। ‘এ’ দলের অধিনায়কত্ব করছেন বিদেশ সফরে। শ্রীলঙ্কা সফরে ‘এ’ দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন মুমিনুল হক। তাকে জাতীয় লিগের একটি দলের অধিনায়কত্ব দেয়া অস্বাভাবিক নয়। তিনি জাতীয় লিগে অধিনায়কত্ব করতেই পারেন। তবে সেই অধিনায়কত্ব যখন, তামিম ইকবালের মত দেশের অন্যতম সেরা পারফরমারকে টপকে-তখন বিষয়টি সাড়া জাগায় বৈ কি!

চট্টগ্রাম বিভাগের খেলোয়াড় তালিকায় তামিম ইকবালের নাম থাকার পরও দেখা যাচ্ছে অধিনায়ক হিসেবে আছেন মুমিনুল হক। অর্থাৎ তামিমকে দল পরিচালনার দায়িত্ব না দিয়ে দেয়া হয়েছে মুমিনুলকে। সবচেয়ে বড় বিষয় হলো, ৮ দলের খেলোয়াড় তালিকা ঘোষণা করা হয়েছে, তার ৭ দলেরই অধিনায়ক নেই। একটি মাত্র দলের অধিনায়ক করা হয়েছে। সেটি চট্টগ্রামের ।

ঢাকা বিভাগ, ঢাকা মেট্রো, রাজশাহী বিভাগ, খুলনা বিভাগ, বরিশাল বিভাগ, রংপুর বিভাগ ও সিলেট বিভাগের কাউকে অধিনায়ক করা হয়নি। খেলোয়াড় তালিকায় কারো নামের পাশেই অধিনায়ক কথাটি নেই। শুধু চট্টগ্রামেই মুুমিনুল হকের পাশে লেখা ‘অধিনায়ক।’

জাতীয় লিগের খেলোয়াড় তালিকা
রাজশাহী বিভাগ : জুনায়েদ সিদ্দিকী, মিজানুর রহমান, জহুরুল ইসলাম, অভিষেক মিত্র, মুশফিকুর রহিম, সাব্বির রহমান রুম্মন, মোহাইমিনুল খান চৌধুরী, ফরহাদ রেজা, তাইজুল ইসলাম, শফিউল ইসলাম, শফিকুল ইসলাম, সাকলাইন সজিব, শাকির হোসেন, মোহর শেখ অন্তর।

ঢাকা বিভাগ : নাদিফ চৌধুরী, রকিবুল হাসান, শুভগত হোম, রনি তালুকদার, আব্দুল মজিদ, তাইবুর রহমান, নাজমুল ইসলাম অপু, সাইফ হাসান, সাহাদাত হোসেন, জয়রাজ শেখ ইমন, সালাউদ্দীন শাকিল, সুমন খান, শাকিল আহমেদ, হৃদয় খান, জোবায়ের হোসেন।

খুলনা বিভাগ : ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, মেহেদি হাসান মিরাজ, তুষার ইমরান (ফিটনেস ছাড়পত্র পাওয়া সাপেক্ষে), নাহিদুল ইসলাম, রবিউল ইসলাম, অমিত মজুমদার, জিয়াউর রহমান, খান আব্দুর রাজ্জাক, ইমরানুজ্জামান, মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, আল আমিন হোসেন, হাসানুজ্জামান।

ঢাকা মেট্রো : সাদমান ইসলাম, রাকিব আহমেদ, শামসুর রহমান শুভ, মাহমুদউল্লাহ, মার্শাল আইয়ুব, আল আমিন জুনিয়র, সৈকত আলী, জাবিদ হোসেন, আরাফাত সানি, শহিদুল, আবু হায়দার রনি, মানিক খান, ইলিয়াস সানি ও আমিনুল ইসলাম বিপ্লব।

সিলেট বিভাগ : ইমতিয়াজ হাসান তান্না, জাকির হাসান, জাকির আলী, অলক কাপালি, শাহিনুর রহমান, এনামুল হক জুনিয়র, রাহাতুল ফেরদৌস, জাভেদ, আবু জাইদ রাহি, ইমরান আল ইমাম, ইবাদত হোসেন, তৌফিক খান তুষার, নাসুম আহমেদ, রুহেল মিয়া, মিজানুর রহমান সাইম, মোহাম্মদ রেজাউর রহমান রাজা।

রংপুর বিভাগ : মেহেদি মারুফ, ফারদিন হাসান অনিক, মাহমুদুল হাসান লিমন, নাইম ইসলাম, নাসির হোসেন, তানবির হায়দার খান, সোহরাওয়ার্দী শুভ, আলাউদ্দীন বাবু, সাজেদুল ইসলাম, শুভাশীষ রায়, সঞ্জিত সাহা, রবিউল হক, মাইশিকুর রহমান, হামিদুল ইসলাম ।

বরিশাল বিভাগ : কামরুল ইসলাম রাব্বি, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, শাহরিয়ার নাফীস, মোহাম্মদ আশরাফুল, ফজলে রাব্বি মাহমুদ, সোহাগ গাজী, মনির হোসেন খান, সালমান হোসেন ইমন, নুরুজ্জামান, তানবির ইসলাম, শামসুল ইসলাম, তৌহিদুল ইসলাম রাসেল, মঈন খান, রাফসান মাহমুদ।

চট্টগ্রাম বিভাগ : মুমিনুল হক (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, সাদিকুর রহমান, পিনাক ঘোষ, ইয়াসির আলী রাব্বি, তাসামুল হক, মাহিদুল ইসলাম অংকন, মাসুম খান টুটুল, মেহেদি হাসান (অনূর্ধ-১৯), নোমান চৌধুরী, মিনহাজুল আবেদিন আফ্রিদি, শওকত হোসেন, ইরফান শুক্কুর ও নাইম হাসান।


সকল নিউজ