বরিশাল ক্রাইম নিউজ

বরিশাল ক্রাইম নিউজ

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমরা

Print Friendly, PDF & Email

দুর্বৃত্তদের হাতুড়ি পেটায় পঙ্গু বৃদ্ধ, আতঙ্কে ৫০ পরিবার


অনলাইন ডেস্ক :: মাদক ব্যবসা, জায়গা দখল, হিন্দু দলিত সম্প্রদায়ের নারীদের শ্লীলতাহানিসহ নানা অত্যাচারের প্রতিবাদ করায় হামলার শিকার হয়েছেন বাগেরহাটের দুই বয়োবৃদ্ধ।

বৃদ্ধ রফিকুল ইসলামকে (৬০) হাতুড়িপেটা করে ডান পা ভেঙে দিয়েছে হামলাকারীরা। অপর আহত মুক্তিযোদ্ধা কেরামত মোল্লা (৭০)। ওই ঘটনার পর বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলার আড়ুয়ামাছুয়া গ্রামের ৫০টি জেলে পরিবার ও পাশের গ্রাম মোল্লাহাটের দত্তডাঙ্গার বাসিন্দারা ভয়ে তটস্থ হয়ে আছে।

হামলাকারীদের বিরুদ্ধে চিতলমারী ও মোল্লাহাট থানায় একাধিক মামলা, জিডি রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে বাগেরহাট পুলিশ সুপারের নিকট লিখিত আবেদন ও সংবাদ সম্মেলন করেও অজ্ঞাত কারণে কোন প্রতিকার পাচ্ছে না ভুক্তভোগী এলাকাবাসী।

শুক্রবার রফিকুলের ভাই আবুল হাসান মোল্লা সাংবাদিকদের জানান, বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলার আড়ুয়ামাছুয়া গ্রামের দলিত জেলেদের উপর হামলার খবর শুনে পার্শ্ববর্তী মোল্লারহাট উপজেলার দত্তডাঙ্গা গ্রামের বৃদ্ধ রফিকুল ছুটে যান। সেখানে গিয়ে দেখেন ইমন মোল্লার নেতৃত্বে ছয় সাতজন যুবক প্রকাশ্যে মাদক গ্রহণ করে লোকজনকে হুমকি দিচ্ছে।

এ সময় বয়োবৃদ্ধ রফিকুল ইসলাম (৬০) ও মুক্তিযোদ্ধা কেরামত মোল্লা (৭০) ওই যুবকদের অনৈতিক কাজের প্রতিবাদ করেন। ওই যুবকেরা ক্ষিপ্ত হয়ে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে দুই বয়োবৃদ্ধকে গুরুতর আহত করে। পিটিয়ে বৃদ্ধ রফিকুলের ডান পা ভেঙে দেয়।

এটা গত ২৬ জানুয়ারির ঘটনা। হামলায় আহত রফিকুল ইসলাম মোল্লাহাটের দত্তডাঙ্গা গ্রামের আফসার উদ্দিনের পুত্র। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। তিনি গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

চিতলমারীর আড়ুয়ামাছুয়া গ্রামের সুশান্ত সমাদ্দার বলেন,‘ইতোপূর্বে আমার ভাই-বউয়ের শ্লীলতাহানি ঘটিয়েছে আরিফুল সিংসহ অন্যরা । তারা জামিনে এসে আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। এর প্রতিবাদ করায় রফিকুলের পা ভেঙে দিয়েছে। তাদের অত্যাচারে আমরা ৫০টি জেলে পরিবার আতঙ্কে আছি।’

অপর আহত মুক্তিযোদ্ধা কেরামত আলী মোল্লা বলেন, এ হামলাকারীদের বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মামলা, জিডি থাকার পরেও তারা এ অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে। পাশাপাশি বীরদর্পে ঘুরে বেড়াচ্ছে।

চিতলমারী থানার পুলিশ পরিদর্শক মীর শরিফুল হক জানান, ইতোপূর্বে নারী নির্যাতন মামলার ওই আসামীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছিল। পুনরায় অভিযোগ পেলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

মোল্লাহাট থানার ওসি কাজী গোলাম কবীর জানান, এ বিষয়ে মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *