বরিশাল ক্রাইম নিউজ

বরিশাল ক্রাইম নিউজ

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমরা

Print Friendly, PDF & Email

পটুয়াখালীতে গৃহবধূকে হাত পা বেঁধে নির্যাতন

পটুয়াখালী প্রতিনিধি ::  গৃহবধূ এ্যানি আক্তারের (২৪) দুই হাত ও পা ওড়না দিয়ে বেঁধে লোহার রড ও লাঠির আঘাতে সমস্ত শরীর থেঁতলে দেয়া হয়েছে। চুল ধরে ঘরের এক পাশ থেকে অন্য পশে টেনে নেয়া হয়েছে। মাথার চুল অনেকটা ছিড়ে এবং উপড়ে গেছে। প্রায় ঘন্টা ব্যাপী নির্দয় নির্যাতনে গৃহবধূ অচেতন হয়ে গেলে তাকে ফেলে রেখে হয়। তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পাষন্ড দেবর সাইদুল মুন্সী, তার স্ত্রী ছোয়া ও চাচাতো ননদ রাবেয়া এভাবে এ গৃহবধূকে মারধর নির্যাতন চালায়। ভাংচুর ও তছনছ করা হয় ঘরের আসবাবপত্র।

পটুয়াখালীর কলাপাড়ার পৌর শহরের নাচনাপাড়া এলাকায় মঙ্গলবার রাতে এ ঘটনা ঘটেছে। রাস্তা থেকে চলাচল করা পথচারীসহ পড়শীরা শব্দ শুনে ঘরে ঢুকে এ্যানিকে উদ্ধার করে কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করে।

হাসপাতালের ফ্লোরে থাকা এ্যানি আক্তার জানায়, ঘরের উঠানে রান্না করার জন্য প্রায় চারদিন ধরে একটি চুলা তৈরি করেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সে প্রতিবেশীর বাসায় ঘুরতে যায়। এসময় তার চুলাটি ভেঙ্গে ফেলা হয়। সন্ধ্যার পর চুলা ভাঙ্গা দেখে এ্যানি গালাগাল করতে থাকে। তার জা ও দেবর গালাগাল করতে নিষেধ করে এবং এক পর্যায়ে মারতে তেড়ে আসে। বিষয়টি তার স্বামী রাজমিস্ত্রী শ্রমিক কাওসার হোসেনকে জানালে দুই ভাইয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। রাতে এ্যানির স্বামী বাজারে ঘুরতে গেলে এ সুযোগে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে তার ওপর নির্মম নির্যাতন চালানো হয়।

এ্যানির অপর জা ফাতেমা বেগম ও সুমী জানায়, এ্যানির উপর নির্যাতনের খবর পেয়ে ঘরে এসে তাকে অচেতন দেখতে পান। তখনও তার দুই পা ও হাত বাঁধা ছিলো। ঘরের মেঝেতে ছড়ানো ছিটানো ছিলো মাথার চুল। শরীরে রডের আঘাতে কালচে দাগ পড়ে গেছে এ্যানির। এ ঘটনায় থানায় মামলা করা হবে বলে গৃহবধুর স্বামী কাওসার হোসেন জানান।

শেয়ার করুন :

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp

আপনার মন্তব্য করুন :