বরিশাল ক্রাইম নিউজ

বরিশাল ক্রাইম নিউজ

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমরা

Print Friendly, PDF & Email

পরিবহনের চাপ সামাল দিতে বরিশালের দুটি বাস টার্মিনালই স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক ::: পদ্মাসেতু উদ্বোধনের পর গোটা দক্ষিণাঞ্চলে যানবাহনের চাপ বাড়বে। আর এই বাড়তি যানবাহনের চাপ সামাল দেওয়াসহ যাত্রীদের দুর্ভোগ লাঘবে বরিশাল নগরের দুটি বাস টার্মিনালই স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ।

বরিশাল নগরের নথুল্লাবাদে থাকা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালকে কাশিপুরস্থ নির্মানাধীন ট্রাক টার্মিনালে অস্থায়ীভাবে স্থানান্তর করার সিদ্ধান্ত আগেই নেওয়া ছিল। এবার নগরের রুপাতলীস্থ বাস টার্মিনালের একটি অংশকে বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়কের কাঠালতলা নয়তো শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সেতুর নীচে (২৪ নম্বর ওয়ার্ডের) কীর্তনখোলা নদীর তীরে নেওয়ার কথা জানিয়েছে নগর ভবন কর্তৃপক্ষ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বরিশাল সিটি করপোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ বলেন, বরিশাল শহরের ওপর দিয়েই দক্ষিণাঞ্চলের বাকি ৫ জেলায় মানুষকে সড়কপথে যাতায়াত করতে হয়। পদ্মা সেতু চালু হলে শহরের ভেতর দিয়ে যাওয়া মহাসড়কের অংশের ওপর চাপ বাড়বে কয়েকগুন। এছাড়া নতুন নতুন পরিবহন সংযোগ হওয়ায় টার্মিনালগুলোতেও যাত্রীবাহি বাসের চাপ বাড়বে।

তিনি বলেন, মালিক ও শ্রমিক সমিতির নেতাদের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা জানিয়েছেন বর্তমানে যে বাস রয়েছে নথুল্লাবাদের কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে সেগুলোর জায়গা দিতেই হিমশিম খেতে হয়। আমরাও দেখেছি বাসগুলোকে শিক্ষা বোর্ড, নির্বাচন কমিশন অফিসের সামনেসহ বিভিন্নস্থানে সড়কের পাশে পার্কিং এ রাখা হয়। আর পদ্মাসেতু হলে বাসের পরিমাণ আরও বাড়বে, সেক্ষেত্রে টার্মিনালের ভেতরে সেগুলো রাখা সম্ভব না হওয়ায় সামনের সড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হবে। যা যাত্রীদেরসহ নগরবাসীর ভোগান্তি বাড়াবে। তাই অতিশীঘ্রই নথুল্লাবাদে থাকা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালকে কাশিপুরের ট্রাক টার্মিনালের জায়গায় সরিয়ে নেওয়া হবে।

মেয়র বলেন, বাস টার্মিনালের জন্য নগরের গড়িয়ারপারে নির্ধারিত জায়গা রয়েছে, তবে সেটি উঁচু করে টার্মিনাল তৈরিতে সময় লাগবে। আর যেহেতু ট্রাক টার্মিনালটি মোটামুটি প্রস্তুত আছে তাই সেখানে আপাতত বাস টার্মিনালের কার্যক্রম পরিচালনা করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। সেখানে যে জায়গা রয়েছে তাতে সুন্দরভাবে বাসগুলো যেমন রাখা যাবে, তেমনি বাসগুলো যাত্রীদের নিয়ে টার্মিনালের ভেতর দিয়েই ঘুরে বের হয়ে আসতে পারবে। এতে করে ভোগান্তি কমবে সবার।

অপরদিকে নগরের রুপাতলী বাস টার্মিনাল সংলগ্ন এলাকার সড়কের ওপর চাপ কমানের লক্ষ্যে বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়কে চলাচলকারী বাসগুলোর জন্য আলাদা টার্মিনালের চিন্তাভাবনা করা হয়েছে। এক্ষেত্রে বরগুনা, পটুয়াখালী ও ভোলা রুটের যাত্রীরা নতুন এ বাস টার্মিনাল থেকে সহজেই তাদের গন্তব্যে যেতে পারবেন। এজন্য বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়ক সংলগ্ন কাঠালতলা এলাকায় থাকা সড়ক ও জনপথ বিভাগের একটি জায়গা অথবা শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সেতুর নীচের একটি জায়গাকে প্রাথমিকভাবে নির্ধারন করার চিন্তা ভাবনা আমরা করছি। সড়ক ও জনপথের জায়গাটা পেলে বেশি ভালো হয়, আর ব্রিজরে নীচে কীর্তনখোলা নদী তীরের জায়গাটি আমাদের কিনে নিতে হবে।

বরিশাল সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ বলেন, রুপাতলীর বর্তমান বাস টার্মিনাল থেকে বরিশাল-ঝালকাঠি-পিরোজপুর-খুলনা রুটের বাসগুলো চলাচল করবে। এতে রুপাতলী বাস টার্মিনাল ও গোলচত্তর সড়কের ওপরে যানবাহনের চাপ যেমন কমবে, তেমনি যাত্রীদের ভোগান্তিও কমবে।

শেয়ার করুন :
Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp