বরিশাল ক্রাইম নিউজ

বরিশাল ক্রাইম নিউজ

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমরা

Print Friendly, PDF & Email

বরিশালে জন্মদিন পালন করতে ডেকে নিয়ে নদীতে ফেলে বন্ধুকে খুন!

নিজস্ব প্রতিবেদক :: জন্মদিন পালন করতে ডেকে নিয়ে বরিশালের কীর্তনখোলা নদীতে ফেলে দিয়ে দীপ ঘোষ নামের এক কিশোরকে হত্যার অভিযোগে রিয়াদ (১৭) নামের অপর এক কিশোরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তারা একে অপরের বন্ধু। গতকাল বুধবার রাতে বরিশাল কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘বন্ধুকে পানিতে ফেলে হত্যার অভিযোগে বরিশাল নগরীর আমানতগঞ্জ ইসলামিয়া কলেজ রোডস্থ নিজ বাসা থেকে রিয়াদ নামে ওই কিশোরকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর হত্যা মামলার এজাহারনামীয় আসামি রিয়াদকে আদালতে সোপর্দ করা হলে সে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।’

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) রুমান বলেন, ‘গ্রেপ্তার রিয়াদ অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়া করেছে। তারপর সংসারের প্রয়োজনে হাসপাতাল রোডে একটি জুতার দোকানে চাকরি করত।’

পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘গত ২ নভেম্বর ঘটনার দিন জন্মদিন পালনের একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, রিয়াদ তার বন্ধু দীপ ঘোষকে কোলে তুলে নিয়ে নদীতে ফেলে দিচ্ছে। যেহেতু দীপ সাঁতার জানে না, তাই সে আর বেঁচে ফিরতে পারেনি। যদিও রিয়াদ ও তার বন্ধুরা পরবর্তীতে বুঝতে পারে দীপ সাঁতার জানে না, তবে সেসময় তারা চেষ্টা করেও আর দীপকে তুলতে পারেনি। ততক্ষণে দীপ পানিতে তলিয়ে যায়।’

এসআই রুম্মান আরও বলেন, ‘ঘটনার পরের দিন অপমৃত্যু মামলা হলেও ২৪ নভেম্বর জন্মদিনের ভিডিও ফুটেজ উদ্ধার করা সম্ভব হয়। ভিডিও দেখে অপমৃত্যু মামলাটি হত্যা মামলা হিসেবে গ্রহণ করা হয়। তারপরই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত রিয়াদকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।’

প্রসঙ্গত, বরিশাল নগরের আমানতগঞ্জ এলাকার মিন্টু ঘোষের ছেলে দীপ ঘোষ এ বছর এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল। এক বিষয়ে ফেল করায় আবারও পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। গত ২ নভেম্বর সোমবার ছিল দীপের বন্ধু রিয়াদের জন্মদিন। ওইদিন রিয়াদ, দীপসহ ১০-১২ জন বন্ধু মিলে কীর্তনখোলা নদীতে ট্রলারে করে রিয়াদের জন্মদিন পালনের উদ্যোগ নেয়।

সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তারা একটি ট্রলার ভাড়া করে কীর্তনখোলা নদীতে ঘুরে বেড়ায়। রাত ৮টার দিকে কেক কাটার সময় হৈ-হুল্লোড় করতে গিয়ে ট্রলার থেকে দীপকে নদীতে ফেলে দেয় রিয়াদ। সাঁতার না জানায় দীপ নদীতে তলিয়ে মারা যায়।

গত ৩ নভেম্বর দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে দুর্ঘটনাস্থল থেকে প্রায় দেড়শ ফুট দূরে দীপের মরদেহ উদ্ধার করে ডুবুরিরা। এ ঘটনায় নিহত দীপের বাবা মন্টু ঘোষ বাদী হয়ে রিয়াদসহ পাঁচ-ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। মামলায় রিয়াদ দীপকে ধাক্কা মেরে নদীতে ফেলে দিয়ে হত্যা করেছে বলে উল্লেখ করা হয়।

শেয়ার করুন :
Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp

আপনার মন্তব্য করুন :