বরিশাল ক্রাইম নিউজ

বরিশাল ক্রাইম নিউজ

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমরা

Print Friendly, PDF & Email

বরিশালে নারীর করোনার প্রথম দিন রিপোর্ট ‘পজিটিভ’ পরের দিন ‘নেগেটিভ’

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় কর্মজীবী এক নারীর করোনা ভাইরাস সনাক্তের রিপোর্ট নিয়ে চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে। দুই দিনের ব্যবধানে রোকসানা নামের ওই নারীর রিপোর্ট প্রথমে পজিটিভ ও পরে নেগেটিভ আসে। তবে এমন অবস্থার সমাধান দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

জানা গেছে, বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার বাকাল ইউনিয়নের ফুল্লশ্রী গ্রামের বাসিন্দা রাশিদা রোকসানা তার কর্মস্থল কোটালীপাড়ায় উপসর্গ বিহীন অবস্থায় ২৫ জুলাই কোভিড-১৯ পরীক্ষায় নমুনা দেন। ২৬ জুলাই ফরিদুপর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরীক্ষায় তার করোনা রিপোর্ট পজেটিভ আসে।

তার বাবার বাড়ি আগৈলঝাড়া হওয়ায় কোটালীপাড়ার রিপোর্ট পাওয়ার একদিন পরে ২৭ জুলাই আগৈলঝাড়া উপজেলা হাসপাতালে পুনরায় পরীক্ষার জন্য নমুনা দেন। বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কোভিড-১৯ পরীক্ষার ২৮ জুলাই তার রিপোর্টে করোনা ভাইরাস নেগেিেটভ আসে।

দুই দিনের ব্যবধানে দুই জেলার দুই রকমের রিপোর্ট নিয়ে চরম বিভ্রান্তিতে পড়েন রাশিদা রোকসানাসহ ওই বাড়ির বাসিন্দারা।

কোনটি মেনে চলবেন তিনি? এমন প্রশ্নের উত্তরে আগৈলঝাড়া উপজেলা হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. বখতিয়ার আল মামুন জানান, চিকিৎসা বিজ্ঞানে একটা কথা রয়েছে আর তা হলো, ফলস পজেটিভ এবং ফলস নেগেটিভ। এমন ঘটনা প্রতিটি মেশিনে একটি হয়ে থাকতে পারে। তবে সর্বশেষ পরীক্ষায় নেগেটিভ রিপোর্ট আসায় তিনি করোনা মুক্ত হিসেবে বিবেচিত হবেন।

বরিশাল সিভিল সার্জন ডা. মনোয়ার হোসেন বলেন, মেডিকেল সায়েন্সে কিছু কথা থাকে, যার কোনো ব্যাখ্যা থাকে না। যে মেশিন যে রকম রিপোর্ট দিয়েছে সেই অনুযায়ি রিপোর্ট প্রদান করা হয়েছে। এর বেশি কিছু তিনি বলতে রাজি হননি।

শেয়ার করুন :

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp

আপনার মন্তব্য করুন :