বরিশাল ক্রাইম নিউজ

বরিশাল ক্রাইম নিউজ

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমরা

Print Friendly, PDF & Email

বরিশালে সড়ক অবরোধ করে ছাত্রদলের বিক্ষোভ সমাবেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক ::: কেন্দ্রীয় ছাত্রদল নেতা সাইফ মাহমুদ জুয়েলের ওপর হামলার প্রতিবাদে বরিশাল নগরীতে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করেছে সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

আজ (২৪ নভেম্বর) বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের উদ্যোগে মিছিলটি শহরের আগরপুর রোড থেকে সদররোডস্থ দলীয় কার্যালয়ের সম্মুখে যাওয়ার প্রাক্কালে পুলিশের বাধার মুখে পড়ে। ছাত্রদল নেতাকর্মীরা পুলিশের বাধা উপেক্ষা করে সদর রোডে অবস্থান নেওয়াসহ শীর্ষ নেতার ওপর হামলার প্রতিবাদস্বরুপ আওয়ামী লীগ সরকারবিরোধী নানান শ্লোগান দিতে থাকেন। এতে সদর রোডে পরিবহন চলাচল বন্ধ হয়ে গেলে উভয়প্রান্তে কয়েক শ’ যানবাহন আটকা পড়ে। আধা ঘণ্টার মাথায় নেতাকর্মীরা সড়ক থেকে সরে দলীয় কার্যালয়ের সম্মুখে অবস্থান নেয় এবং সেখানে সমাবেশ করে তাদের নেতার ওপর হামলায় জড়িতদের শাস্তির দাবি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন।

নেতাকর্মীরা জানান, পুলিশের গুলিতে নিহত ছাত্রদল নেতা নয়নের বাড়ি থেকে ফেরার পথে বুধবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে তাদের সংগঠনের সভাপতি রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ এবং সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েলের গাড়িবহরে হামলা করে আওয়ামী লীগ-যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। একপর্যায়ে তারা ছাত্রদলের এই দুই শীর্ষ নেতাকে বহনকারী প্রাইভেটকার ভাঙচুর করাসহ তাদের মারধর করে। এতে সভাপতি শ্রাবণ তেমন একটা আহত না হলেও জুয়েলের অবস্থা গুরুতর। তাকে উদ্ধার করে রাজধানী ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

বুধবার বিকেলের এই হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ওই দিন রাতে বরিশাল নগরীতে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ করে এবং জড়িতদের গ্রেপ্তারপূর্বক আইনের আওতায় নিয়ে আসার দাবি রাখে। অবশ্য ওই রাতেই ছাত্রদলের হাইকমান্ড এই হামলার ঘটনাকে ন্যক্কারজনক অভিহিত করে এবং বৃহস্পতিবার সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশ পালনের ঘোষণা দেয়। সেই নির্দেশনার আলোকে বৃহস্পতিবার বিকেলে কর্মসূচি পালনে রাজপথে নামে বরিশাল জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের ৫ শতাধিক নেতাকর্মী।

ছাত্রদলের একাধিক নেতা জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় কর্মসূচি পালনের লক্ষে নেতাকর্মীরা বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে শহরের আগরপুর রোডে অবস্থান নেয়। এবং সেখান থেকে তারা জোটবদ্ধ হয়ে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের দিকে যেতে চাইলে সদর রোডে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। এসময় সংক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা সড়কে শুয়ে এবং বসে পড়ে। এতে পুরো সদর রোডে পরিবহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে পুলিশের অনুরোধে নেতাকর্মীরা সড়ক থেকে সরে বিএনপির কার্যালয়ের সম্মুখে অবস্থান নেয় এবং সেখানে সমাবেশ করে।

এই সমাবেশে বরিশাল মহানগর ছাত্রদলের সিনিয়র সহসভাপতি তরিকুল ইসলাম তারেকের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মাহফুজুল আলম মিঠু, মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির, জেলা ছাত্রদলের সহসভাপতি নাঈমুল হাসান সোহেল এবং সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল রাঢ়ী প্রমুখ।

বক্তারা তাদের বক্তব্যে আওয়ামী লীগ সরকারের সমালোচনা করার পাশাপাশি তাদের সংগঠনের শীর্ষ নেতৃত্বের ওপর হামলার প্রতিবাদ জানিয়ে জড়িতদের গ্রেপ্তারপূর্বক আইনের আওতায় নিয়ে আসার জোর দাবি রাখেন।’

শেয়ার করুন :
Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp