বরিশাল ক্রাইম নিউজ

বরিশাল ক্রাইম নিউজ

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমরা

Print Friendly, PDF & Email

বানারীপাড়ার হাবিবুর রহমানের বন্দি জীবন শেষ হচ্ছেনা

রাহাদ সুমন,বিশেষ প্রতিনিধি :: বিডিআর বিদ্রোহের বিস্ফোরক মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি না হওয়ায় বানারীপাড়ার হাবিবুর রহমানসহ ৩ শতাধিক আসামীর বন্দি জীবন শেষ হচ্ছেনা।

বুধবার বিডিআরের সাবেক সিপাহী হাবিবুর রহমানের মা-বাবা ও স্ত্রী-সন্তান সহ পরিবারের সদস্যরা সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে দ্রুত মামলা নিষ্পত্তি করে তার মুক্তির দাবী জানিয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে কারান্তরীণ হাবিবুর রহমানের পরিবারের সদস্যরা লিখিতভাবে জানান, হাবিবুর রহমান বাংলাদেশ বিডিআর (বর্তমান বিজিবি) বাহিনীতে দেশ ও জনগণনের জন্য কাজ করার মহান ব্রতী নিয়ে ২০০২ সালে সৈনিকপদে যোগদান করেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে ২০০৯ সালের পিলখানা হত্যা মামলায় তাকে আসামী করা হয়। ২০১১ সালের ৫ জানুয়ারি ওই হত্যা মামলায় চার্জ গঠন করে ২ বছর ১০ মাস পর্যন্ত ৫৫৪ জন স্বাক্ষীদের স্বাক্ষ্য গ্রহন করে ২০১৩ সালের ৫ নভেম্বর রায় প্রদান করা হয়। সেখানে ১৫২ জনকে ফাঁসি,১৬১ জনকে যাবৎজীবন ও ২৭৮ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান এবং ৭৯ জনের অপরাধ প্রমানিত না হওয়ায় তাদেরকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়। হত্যা মামলায় বেকসুর খালাস পেলেও বিদ্রোহ মামলায় হাবিবুর রহমান ইতোমধ্যে সাজার দীর্ঘ ৬ বছর ভোগ করেছে।পরে তাকে বিস্ফোরক মামলায় আসামী করে গ্রেফতার দেখানো হয়।সাজাভোগ করার ৬ বছর শেষ করে বর্তমানে তার কারাবাস জীবনের ১১ বছর চলছে।

এর মধ্যে বিচার ছাড়াই ৬ বছর চলছে তার কারাবাস।সে যখন পিলখানা হত্যা মামলায় আসামী হয় তখন তার একমাত্র সন্তান জাকারিয়া রহমান (১২)’র বয়স ছিলো মাত্র ১ বছর। হাবিবুর রহমান দীর্ঘদিন ধরে কারাগারে থাকায় তার বৃদ্ধ মা-বাবা ও স্ত্রী-সন্তান সহ পরিবারের সদস্যরা মানবেতর জীবনযাপন করছে।তাদের সংসারে নুন আনতে পানতা ফুরায় অবস্থা বিরাজ করছে।এ অবস্থায় তারা তাকে নির্দোষ দাবী করে তার জামিনে মুক্তির জন্য মানবতার মা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আকুল আবেদন জানিয়েছেন। বৃদ্ধ মা-বাবা জীবদ্দশায় ছেলেকে মুক্ত দেখে যেতে আকুতি জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত সিপাহী হাবিবুর রহমানের বাড়ি বানারীপাড়ার বাইশারী ইউনিয়নের উত্তর নাজিরপুর গ্রামে।

শেয়ার করুন :

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp

আপনার মন্তব্য করুন :

আমাদের সকল আপডেট পেতে মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন প্লে-ষ্টোর থেকে।