বরিশাল ক্রাইম নিউজ

বরিশাল ক্রাইম নিউজ

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমরা

Print Friendly, PDF & Email

বিএমপির ফেইজবুক পেইজে প্রচারিত সংবাদ ও সাংবাদিকের বিষয়ে দেয়া অভিমতের বিআরইউ’র প্রতিবাদ

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ- বিএমপি এর ফেইসবুক পেজে কর্তৃপক্ষ কতৃক, গত ১লা মার্চ যমুনা টেলিভিশনে প্রচারিত সংবাদ ও এর বরিশাল প্রতিনিধি কে জড়িয়ে গত ৩রা এপ্রিল, ২০২০, দেয়া স্টাটাসে বরিশাল রিপোর্টার্স ইউনিটি প্রতিবাদ জানাচ্ছে। ‘আবেগ তাড়িত বিশ্লেষণ’ এর নামে দেয়া বক্তব্যেরও প্রত্যাহার দাবী করছে।

ফেইসবুক পেইজে দেয়া স্টাটাসে উল্লেখ করা হয় ‘ এ ধরনের সংবাদ প্রকাশ দেশ ও জাতির বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ার সমার্থক’ এই মন্তব্যেরও তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আমরা মনে করি কোন ভুক্ত ভোগীর নিয়ম নীতি মেনে অভিযোগ তার বরাতে প্রচার ও উথ্থাপিত অভিযোগে, অভিযুক্তের বক্তব্য প্রচারকে কোন ভাবেই দেশ ও জাতির বিরুদ্ধে অবস্থানের সমার্থক হিসেবে তুলে ধরা যায় না। এটি সকল ধরনের ন্যায় নীতির পরিপন্থী। আমরা মনে করি ভুক্তভোগীর বরাত দিয়ে যে রিপোর্ট টি প্রচারিত হয়েছে, সেখানে সাংবাদিকতার নীতিমালা পরিপন্থী কোন বিষয় ছিল না। তারপরেও অভিযোগের প্রেক্ষিত কর্তৃপক্ষ সকল বিষয় টি তদন্ত পূর্বক যথোপযুক্ত সিদ্ধান্তে আসতে পারতেন।
কিন্তু তার আগেই আবেগ তাড়িত বিশ্লেষণের নামে অভিমতে , বিশেষ করে,‘ বর্তমান পরিস্থিতিতে পুলিশের হয়রানি ও খারাপ আচরনের অভিযোগ অবান্তর হওয়ারই সম্ভাবনা বেশী’ মন্তব্য তদন্তকে প্রভাবিত ও একপেশে করবে বলে আমাদের কাছে প্রতিওমান হয়েছে। ফেইজবুক পেইজে বক্তব্যটি যে ভাষায় ও অভিমত হিসেবে উপস্থাপিত হয়েছে এবং একজন সংবাদ কর্মীকে কোন রকম তদন্ত ও আত্মপক্ষ সমর্থন ছাড়া তার বিরুদ্ধে যে মনোভাব পোষণ করা হয়েছে, এবং তা প্রচার করা হয়েছে, তা পেশাদার প্রতিষ্ঠানে সচারচর দৃষ্টিগোচর হয় না।

আমরা মনে করি এর মাধ্যমে বাংলাদেশ পুলিশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার চেষ্টা করা হয়েছে। ফেইজবুক পেইজে‘ একজন পেশাদার সংবাদ কর্মীর কাছে সংবাদ প্রচার একটি রুটিন কাজ।’ ও ‘ কারো বিরুদ্ধে সংবাদ প্রচার কোন খেলা নয়-।’ আমরা মনেকরি এই বক্তব্য দুইটি কোন দায়িত্ব প্রসুত মন্তব্য হতে পারে না। সাংবাদিকরা সকল দায়, ও দায়িত্ব বহন করেই রিপোর্ট করেন। এমনকি এর পরিনতি ও প্রতিক্রিয়া কি হতে পারে সে সম্পর্কে সজাগ আছেন। যে কারণে গণমাধ্যম একটি রাস্ট্রের ৪র্থ স্তম্ভ হিসেবে বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত। তাই এটা কোন রুটিন কাজ বা খেলা নয়।

আমরা মনে করি এ সকল অপেশাদার, অযাচিত মন্তব্য একটি পেশাদার বাহিনীর ভাবমূর্তিকে উজ্জ্বল করার পরিবর্তে ক্ষতিগ্রস্থ করতে পারে, যা কারো অভিপ্রেত নয়। এ ধরনের মনোভাবে আমরা সাংবাদিক সমাজ অপমানিত বোধ করছি। আমাদের বত্তব্য সুস্পষ্ট- কোন পেশাদার সাংবাদিক যে রিপোর্ট করেন সে বিষয়টি যেমন তার পেশাগত অধিকার, তেমনি এই পেশাগত অধিকারে কেউ ক্ষতিগ্রস্থ হলে তার সুযোগ রয়েছে যথাযথ কর্তৃক্ষের কাছে তা তুলে ধরে তার অবস্থানটি নিশ্চিত করার।

তদন্তের আগেই প্রকাশিত রিপোর্টের তুলোধুনা করে, বাছ বিচারহীন মন্তব্য সমাজের জন্য কোন কল্যান বয়ে আনতে পারে না। আমরা ত্রুটিপূর্ণ, অপেশাদার এই মন্তব্যের প্রত্যাহার দাবী করছি। সেই সাথে এই ধরনের বক্তব্যেরও প্রতিবাদ জানাই।

শেয়ার করুন :

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp

আপনার মন্তব্য করুন :

আমাদের সকল আপডেট পেতে মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন প্লে-ষ্টোর থেকে।