বরিশাল ক্রাইম নিউজ

বরিশাল ক্রাইম নিউজ

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমরা

Print Friendly, PDF & Email

যুক্তরাজ্য থেকে দেশে ফিরলে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন

অনলাইন ডেস্ক :: নতুন ধরনের করোনাভাইরাসের বিস্তার লাভ করা যুক্তরাজ্য থেকে কেউ দেশে ফিরলেই তাকে বাধ্যতামূলকভাবে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) মন্ত্রিসভা বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই সিদ্ধান্ত দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী ও সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মন্ত্রীরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকে যোগ দেন। বৈঠকের সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, বিশেষ করে লন্ডন থেকে যারা আসবে তাদেরকে স্ট্রংলি কোয়ারেন্টাইনে রাখতে হবে। উনি (প্রধানমন্ত্রী) আমাদেরকে দায়িত্ব দিয়েছেন। দুটি অপশন ছিল (লন্ডন থেকে আসা যাত্রীদের প্রবেশ) বন্ধ করা হবে নাকি স্ট্রং কোয়ারেন্টাইনে যেতে হবে। শেষে সিদ্ধান্ত হয়েছে স্ট্রং কোয়ারেন্টাইনে যাওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, আজকে রাতে আমরা একটা মিটিং দিয়েছি, সেই মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত হবে কবে থেকে জানানো হবে। মিটিংয়ে টেকনিক্যাল লোকজন থাকবে। লন্ডন ফ্লাইটে যেই আসুক তার যদি গতকালকেরও নেগেটিভ রিপোর্ট থাকে তারপরও তাকে বাধ্যতামূলকভাবে ১৪ দিনের প্রতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

খন্দকার আনোয়ারুল বলেন, ‘দিয়াবাড়ি ও হজক্যাম্পে আমাদের প্রতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন আছে, সেথানে থাকবে ১৪ দিন। কিছু হোটেলের ব্যবস্থা রাখতে হবে। মিটিংয়ের পর সিদ্ধান্ত দেয়া হবে যে অত তারিখের পর যারা লন্ডন থেকে আসবে তাদের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। আজকে থেকেই তো করা যাবে না, এতে অনেকে বিপদে পড়ে যাবে। একটা লজিক্যাল টাইম দিয়ে নোটিফিকেশন করে দেবে, ওইদিন থেকে যারা আসবে তারা রেস্ট্রিকশনে থাকবে।’

মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুরে হোটেলে যেভাবে থাকে সেভাবেই কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘কেউ (লন্ডন থেকে) সিলেটে আসলে তাকে সিলেটে, কেউ চট্টগ্রামে আসলে চট্টগ্রামে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে। কোয়ারেন্টাইনে থাকার খরচ ওই ব্যক্তিকেই বহন করতে হবে।’ফিরলেই তাকে বাধ্যতামূলকভাবে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) মন্ত্রিসভা বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই সিদ্ধান্ত দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী ও সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মন্ত্রীরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকে যোগ দেন। বৈঠকের সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, বিশেষ করে লন্ডন থেকে যারা আসবে তাদেরকে স্ট্রংলি কোয়ারেন্টাইনে রাখতে হবে। উনি (প্রধানমন্ত্রী) আমাদেরকে দায়িত্ব দিয়েছেন। দুটি অপশন ছিল (লন্ডন থেকে আসা যাত্রীদের প্রবেশ) বন্ধ করা হবে নাকি স্ট্রং কোয়ারেন্টাইনে যেতে হবে। শেষে সিদ্ধান্ত হয়েছে স্ট্রং কোয়ারেন্টাইনে যাওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, আজকে রাতে আমরা একটা মিটিং দিয়েছি, সেই মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত হবে কবে থেকে জানানো হবে। মিটিংয়ে টেকনিক্যাল লোকজন থাকবে। লন্ডন ফ্লাইটে যেই আসুক তার যদি গতকালকেরও নেগেটিভ রিপোর্ট থাকে তারপরও তাকে বাধ্যতামূলকভাবে ১৪ দিনের প্রতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

খন্দকার আনোয়ারুল বলেন, ‘দিয়াবাড়ি ও হজক্যাম্পে আমাদের প্রতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন আছে, সেথানে থাকবে ১৪ দিন। কিছু হোটেলের ব্যবস্থা রাখতে হবে। মিটিংয়ের পর সিদ্ধান্ত দেয়া হবে যে অত তারিখের পর যারা লন্ডন থেকে আসবে তাদের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। আজকে থেকেই তো করা যাবে না, এতে অনেকে বিপদে পড়ে যাবে। একটা লজিক্যাল টাইম দিয়ে নোটিফিকেশন করে দেবে, ওইদিন থেকে যারা আসবে তারা রেস্ট্রিকশনে থাকবে।’

মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুরে হোটেলে যেভাবে থাকে সেভাবেই কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘কেউ (লন্ডন থেকে) সিলেটে আসলে তাকে সিলেটে, কেউ চট্টগ্রামে আসলে চট্টগ্রামে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে। কোয়ারেন্টাইনে থাকার খরচ ওই ব্যক্তিকেই বহন করতে হবে।’

শেয়ার করুন :
Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp

আপনার মন্তব্য করুন :