বরিশাল ক্রাইম নিউজ

বরিশাল ক্রাইম নিউজ

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমরা

Print Friendly, PDF & Email

শতাধিক মামলার আসামি রিয়েল এস্টেটের মালিক নাসিম দম্পতি

অস্ত্র আইনে দায়ের করা মামলায় রিয়েল এস্টেটের মালিক মো. ইমাম হোসেন নাসিম ও তার স্ত্রী হালিমা আক্তার সালমাকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেছে পুলিশ। এতে তাদের দু’জনের বিরুদ্ধে শতাধিক মামলা আছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। মামলায় সাক্ষী করা হয়েছে ২০ জনকে।

বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) রূপনগর থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা পুলিশের উপ-পরিদর্শক সেলিম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ১৫ নভেম্বর ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রূপনগর থানার উপ-পরিদর্শক মো. ওমর কাইউম ২০ জনকে সাক্ষী করে এ অভিযোগপত্র দাখিল করেন। অভিযোগপত্র আদালতে দাখিল করার পর গত ২৬ নভেম্বর ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম জুলফিকার হায়াত মামলাটি ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে বদলির আদেশ দেন।

মামলার অভিযোগ পত্রে বলা হয়, রাজধানীর রূপনগর বিইউবিটি এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযোগ চালানোর সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত ৩০ সেপ্টেম্বর বেলা সাড়ে তিন টার দিকে আসামিদের তল্লাশি করার সময় পেছনের দরজা দিয়ে পালানোর চেষ্টা করেন। তারপর জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আসামি ইমাম হোসেন নাসিম নিজ হাতে বেড রুমের আলমারির ভেতর থেকে একটি সচল ও সক্রিয় বিদেশি পিস্তল, তিন রাউন্ড গুলিভর্তি ম্যাগজিন বের করে দেয়। পরস্পর যোগসাজশে আসামি ইমাম হোসেন নাসিম নিজ হেফাজতে অবৈধ গুলিভর্তি পিস্তল রাখে এবং তার স্ত্রী আসামি হালিমা আক্তার সালমা অস্ত্রগুলি নিজের স্বজ্ঞানে রেখে তারা ১৮৭৮ সালের অস্ত্র আইনের ১৯-ক/১৯-চ ধারায় অপরাধ করেছে। যা মামলার ঘটনাটি সত্য বলে প্রতীয়মান হয়। কিন্তু এ মামলার ঘটনার সঙ্গে অন্য কেউ জড়িত আছে কি না সে বিষয়ে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

অভিযোগপত্রে আরো বলা হয়, রিয়েল এস্টেটের মালিক মো. ইমাম হোসেন নাসিম ও তার স্ত্রী হালিমা আক্তার সালমার বিরুদ্ধে শতাধিক মামলা রয়েছে বলে উল্লেখ করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। এমনকি দুইজন আসামি তাদের বিরুদ্ধে শতাধিক মামলা আছে নিজেরা বিষয়টি স্বীকার করেন। যার সত্যতা হিসেবে তদন্তে সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র পাওয়া যায়।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর প্রতারণার অভিযোগে রাজধানীর রূপনগর আবাসিক এলাকায় অভিযান চালিয়ে তৃতীয় স্ত্রীসহ নাসিমকে গ্রেফতার করে র্যাব-৪। এসময় তাদের কাছ থেকে একটি ৭ দশমিক ৬৫ মিমি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগজিন, তিন রাউন্ড গুলি, এক লাখ ৩৫ হাজার জাল টাকা, ১৪শ পিস ইয়াবা, দুই বোতল বিদেশি মদ, চারটি ওয়াকিটকি সেট, ছয়টি পাসপোর্ট, ৩৭টি ব্যাংক চেক বই এবং ৩২টি সিম কার্ড জব্দ করা হয়। পরে তাদের বিরুদ্ধে তিনটি মামলা দায়ের করা হয়।

শেয়ার করুন :
Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp

আপনার মন্তব্য করুন :