বরিশাল ক্রাইম নিউজ

বরিশাল ক্রাইম নিউজ

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমরা

Print Friendly, PDF & Email

শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতনকারী সেই মা-ছেলে আটক

অনলাইন ডেস্ক :: ময়মনসিংহের গৌরীপুরে রিফাত (৯) নামের দ্বিতীয় শ্রেণিপড়ুয়া এক শিক্ষার্থীকে মোবাইল চুরির অপবাদ দিয়ে গাছে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় মা-ছেলেকে আটক করেছে পুলিশ।

আটকরা হলেন-ফাতেমা বেগম (৪৫) ও তার ছেলে হিমেল (২৫)। ফাতেমা ডৌহাখলা ইউনিয়নের তাতকুড়া গ্রামের মৃত বারেকের স্ত্রী।

মা-ছেলেকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হালিম সিদ্দিকী।

তিনি বলেন, বিষয়টি জানার সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে অফিসার পাঠানো হয়। ঘটনার সত্যতা পাওয়ার পর নির্যাতনকারী মা ও ছেলেকে আটক করে থানায় আনা হয়। তাদের বিরুদ্ধে মামলা প্রস্তুতি চলছে।

এর আগে বিকেলে ‘মোবাইল চুরির অপবাদে শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতন’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এর পরই মা ও ছেলেকে আটকের ব্যবস্থা নেয় পুলিশ।

গত শুক্রবার (৪ জুন) দুপুরে রামগোপালপুর ইউনিয়নের মধুবন আদর্শ গ্রামে (গুচ্ছগ্রাম) এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি স্থানীয়দের মাঝেই গোপন থাকে। পরে নির্যাতনের ভিডিওটি ফেসবুকে শেয়ার দিলে তা ছড়িয়ে পড়ে।

নির্যাতনের শিকার রিফাতের বাবা সুরুজ মিয়া বলেন, গত মাসের শেষ সপ্তাহে ফাতেমা বেগমের ভাইয়ের স্ত্রী রিফাতকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গাছ থেকে আম পেড়ে দিতে বলেন। রিফাত আম পাড়ার জন্য গাছে উঠলে ফাতেমা ও তার ছেলে হিমেল রিফাতকে গাছ থেকে নামান। পরে তাকে পিটিয়ে আহত করা হয়। এরপর থেকে রিফাত সপ্তাহখানেক জ্বরে ভোগে।

তিনি আরও বলেন, ‘জ্বর কিছুটা সেরে উঠলে গত শুক্রবার আমি বাড়িতে না থাকায় ফাতেমার ছেলে হিমেল রিফাতকে বাড়ি থেকে নিয়ে গাছের সঙ্গে গরুর রশি দিয়ে বেঁধে মারধর করে। পরে আমি বাড়িতে ফিরে বিষয়টি জানতে পেরে তাদের বাড়িতে গিয়ে রশি খুলে ছেলেকে বাড়িতে নিয়ে আসি। গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের বিষয়টি জানালে তারা বিচারের আশ্বাস দেন।’

নির্যাতনের শিকার রিফাত রামগোপালপুর ইউনিয়নের মধুবন আদর্শ গ্রামের সুরুজ মিয়ার ছেলে। সে স্থানীয় রামগোপালপুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র।

শেয়ার করুন :
Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp

আপনার মন্তব্য করুন :