বরিশাল ক্রাইম নিউজ

বরিশাল ক্রাইম নিউজ

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমরা

সাড়ে তিন বছরের শিশুকে বিক্রি করে দিলেন নানি

Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক :: নরসিংদীর পলাশে সাড়ে তিন বছর বয়সী এক শিশুকে বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগে শিশুটির নানি রানু বেগমকে (৫২) আটক করেছে পুলিশ। পরে ওই নারীর দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার দক্ষিণ গাও এলাকা থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়।

আটক রানু বেগম পলাশ উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার বালুচর গ্রামের নান্নু মিয়ার স্ত্রী।

উদ্ধার হওয়া শিশুটির নাম তাওহিদ। সে গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার জামালপুর গ্রামের হতদরিদ্র আলাউদ্দিনের ছেলে। গত তিন মাস আগে রানু বেগমের মেয়ে রেক্সোনা শিশুটিকে দত্তক নিয়েছিলেন।

পুলিশ জানায়, পলাশ উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার বালুচর গ্রামের নান্নু মিয়ার মেয়ে রেক্সোনা তিন মাস আগে গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার জামালপুর গ্রামের হতদরিদ্র আলাউদ্দিনের কাছ থেকে তার শিশু সন্তান তাওহিদকে দত্তক নেন। গত রোজার ঈদের পর তিনি শিশু তাওহিদকে তার মা-বাবার কাছে রেখে সাতক্ষীরায় স্বামীর বাড়িতে চলে যান। এ অবস্থায় রেক্সোনার মা-বাবা শিশুটিকে লালন-পালন করতে থাকেন। গত রোববার সন্ধ্যায় রেক্সোনার বাবা নান্নু মিয়া শিশু তাওহিদকে পাওয়া যাচ্ছে না উল্লেখ করে পলাশ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। একই সঙ্গে দিনভর এলাকায় মাইকিং করানো হয়।

জিজ্ঞাসাবাদের রানু বেগমের আচরণ সন্দেহজনক মনে হলে তাকে আটক করে পুলিশ। পরে রানু বেগম শিশু তাওহিদকে ১২ হাজার টাকায় গাজীপুরের কাপাসিয়ার দক্ষিণ গাও গ্রামের নিঃসন্তান এক দম্পতির কাছে বিক্রি করে দেয়ার কথা স্বীকার করে। এরই সূত্র ধরে মঙ্গলবার সকালে পলাশ থানা পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মো. নাসির উদ্দিন জানান, শিশু তাওহিদকে উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযুক্ত রানু বেগমের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *